রেখেছ বাঙালী করে....

গৌতম বন্দ্যোপাধ্যায়    2017-05-13

আরও একটা রবীন্দ্রজয়ন্তী পার হয়ে গেল। রবীন্দ্রসদন, জোড়াসাঁকো, নন্দন চত্বর থেকে পাড়ায় পাড়ায়। আজি হতে শতবর্ষ পরে, চিত্রাঙ্গদা, শ্যামা, রক্তকরবী, ধূপের ধোঁয়া, ফুলের মালা, অমুক তুসুক। এতো গেল কলকাতা। এ ছাড়া জেলায় জেলায় কি কম হুলস্থূল? বাংলা নববর্ষেও এরকমই একটা পার্বন পার্বন ভাব, তখনও এই দীর্ঘকায় জোব্বা পরিহিত কবিগুরু, তখনও এই রবীন্দ্রনাথ। বাকি দশ মাস আমরা অর্থাৎ বাঙালীরা আনন্দের জন্য রেখেছি ভাদু, শেতলা, কালী, শিবরাত্রি, দুগগাপুজো, ভূত চতুর্দশী ইত্যাদি ইত্যাদি। তখন শুধু কলকাতা শহরে ট্র্যাঙফিক সিগনালে মরচে ধরা রবি ঠাকুর, আর অটো, শাটল, এ সি বাসে তরতাজা এফ এম। না, এফ এম-এ কোনও আপত্তি নেই। আপত্তি একটা জায়গায়। কেন শুধুমাত্র রবীন্দ্রনাথ এসে মাঝে মাঝে আমাদের ঘুম জিজ্ঞাসা করবেন, বাঙালী কি পূরা মরিয়াছে, তাদের আর কি কিছুই দেওয়ার নাই? আর তখনই আমরা গুনগুনিয়ে উঠবো, আমার যে সব দিতে হবে সে তো আমি জানি? আমরা কী কী দিয়েছি, বা বলা যায় কী কী খুইয়েছি, তার তালিকা নেহাৎ ছোট নয়। আমরা নজরুলকে খুইয়েছি, আমরা ঈশ্বরচন্দ্রকে খুইয়েছি, আমরা রামমোহন খুইয়েছি, আমরা অতুলপ্রসাদ, রজনীকান্ত, বঙ্কিম, বিভুতি...., অর্থাৎ এক কথায় আমরা বাঙালিয়ানা খুইয়েছি। হায় রে রবীন্দ্রনাথ! রবীন্দ্রসদনের দোরগোড়ায় গিয়ে তাঁর কানে কানে যদি এ খবর কেউ দিয়ে আসত, তাহলে তিনি কী বলতেন না, বাস্তবিকই বাঙালী বাঁচিয়া প্রমাণ করিয়াছে, সে মরিয়াছে?
আমরা যারা রবীন্দ্রনাথ নিয়ে বছরে দু দু’টো দিন বাঙালীয়ানার স্বার্থে আত্মবলিদান দিচ্ছি, তাদের দেখে কি খোদ কবিগুরুর চোখ অশ্রুসিক্ত হত না? দে গরুর গা ধুইয়ে বলে যে নজরুল তাঁর কাছে হাজির হত তাঁকে আমরা ভিটেছাড়া করেছি জানলে তিনি কি এই বাঙালীকে ক্ষমা করতেন? যে ঈশ্বরচন্দ্রকে মহৎ প্রাণ বলে অভিহিত করেছিলেন তাঁকে খায় না মাথায় দেয় তা এখন বাঙালী জানে না। তাঁর নামে যে একটা মেট্রো স্টেশনও উৎসর্গ হয় না, এ কথা জানলে আমাদের মুখ্যমন্ত্রীর রবীন্দ্রপ্রীতি কি তাঁর খুব একটা ভাল লাগত? মনে হয় না। তিনি যদি জানতেন, আমরা এখন বাস্তবিকই ইংরাজিটাও শিখতে পারিনি, বাঙলাটাকেও ভুলে গিয়েছি, তাহলে কি তাঁর মনে হত না শেষের কবিতায় এ কথাটা না লিখলেই ভাল হত? নিশ্চয়ই ভাবতে বসতেন, বাঙালী হয়তো বা তাঁর কথাকে শিরোধার্য করেই এহেন পথে গিয়েছে। রবীন্দ্রনাথ থাকলে হয়তো বলতেন (কপালের জোর, এমন দুঃস্বপ্ন তাঁকে ভোগ করতে হয়নি) এখন বাঙালীর খুবই দুর্দশা, তার প্রধান কারণ সে নিজের ভাষা ভুলেছে, যুক্তিবাদ ভুলেছে, সে নিজের চরিত্র ভুলেছে।
আজ থেকে বছর ত্রিশেক আগেও এই বাঙালীরা নজরুল, অতুল প্রসাদ, রজনীকান্তের গান গাইত, যতই দ্বিজেন্দ্রলালের সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের মন কষাকষি থাক, তাঁর গান গাইতে অসুবিধা হত না বাঙালীর। রাজনীতি যে পর্যায়েরই থাকুক, বাঙালীর নিজস্ব পারিবারিক জীবনে সে থাবা বাড়ায়নি। সে কাজটি প্রথমে হল, যখন সে শুনল, লাল ঝান্ডা করে পুকার। তখন থেকে বাঙালীর জীবনে একটি অদৃশ্য বিভাজনের রাজনীতি শুরু হল, সে কংগ্রেস-কম্যুনিস্টে ভাগ হল। তার মাঠের ধান লুঠ হল। গরীব মানুষ তাসের টেক্কা হল। ইংরাজি হঠে গেল, কম্পিউটর ঝেঁটিয়ে বিদেয় হল। ধনে-প্রাণে মরতে শুরু করল বাঙালী। কমিউনিস্টরা বলল, কংগ্রেসের জন্যই মানুষের প্রতিরোধ গড়ে উঠেছে। সাড়ে তিন দশক পর কমিউনিস্টরা সমূলে বিদেয় হল, এবার তৃণমূল সেই একই ব্রহ্মাস্ত্র প্রয়োগ করল তাদের দিকে। এবার হয় সবাই তৃণমূল হয়ে যাও, নাহলে বিদেয় হও। সেখানেই তো ইতিহাস থেমে থাকছে না, এবার বর্গী এসেছে দোরে। বাঙালী এবার তার জার্সিটাও খুঁজে পাচ্ছে না। এবার শুরু হয়েছে গীতার সঙ্গে কোরানের লড়াই। এ হল ধর্মযুদ্ধ, বাঙালীরা নিকেশ না হওয়া পর্যন্ত এ যুদ্ধ থামবে বলে মনে হয় না। বাঁচতে চাইলে বাঙালী সত্যিই রবীন্দ্রনাথের পদতলে প্রার্থনায় বসুক।সমবেত কণ্ঠে সুরের ধারা বর্ষিত হোক বা্ংলার বুকে
-আজ নিখিলের এই আনন্দ ধারায় ধুইয়ে দাও
মনের কোনের সব দীনতা, মলিনতা ধুইয়ে দাও

স্টাফ রাইটার,2017-02-18

কলকাতা: প্রয়াত হলেন রাজ্যের মন্ত্রী রেজ্জাক মোল্লার মা রাজিয়া বিবি। আজ দুপুর ১২টা নাগাদ দক্ষিণ ২৪পরগণার বাকরিতে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। বেশ কিছুদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর।...

গৌতম রায়,2017-01-07

ফেলানি হত্যা দিবস আজ। জীবিকার সন্ধানে মা-বাবার সঙ্গে ইটভাটায় কাজ করতে ভারতে গিয়েছিল ১৪ বছরের কিশোরী ফেলানি। ২০১১ সালের ৭ জানুয়ারির এই দিনে ভোরবেলা কাঁটাতারের প্রাচীর ডিঙ্গিয়ে নিজ দেশে ফেরার চেষ্টা করে ফেলানি। এ্‌ সময় কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী সীমান্তের ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) ....

স্টাফ রাইটার,2017-01-06

কলকাতা হাইকোর্টের অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি নিশীথা মাত্রে নারদা কান্ড সম্পর্কে আজ বললেন, এই মামলায় যা তথ্য প্রমান আছে, তা তদন্তের দাবি রাখি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। এরজন্য রাজ্য পুলিশ পর্যাপ্ত নয়। এরা প্রত্যেকে মন্ত্রী, সাংসদ এরা পুলিশকে প্রভাবিত করতে পারেন। তাই ....

স্টাফ রাইটার,2016-12-28

শালবনি: নোট বাতিলের পরে অর্থ সংকট কমাতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক চারটি টাঁকশালে ৫০০ টাকার নোট ছাপার নির্দেশ দেয়। কিন্তু কর্মীরা অতিরিক্ত কাজ করতে অস্বীকার করেছে। তারা ওভারটাইম করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে। শালবনির টাঁকশালের কর্মীরা ৯ ঘন্টা শিফটের বেশি সময় ধরে কাজ করছিলেন।....

স্টাফ রাইটার,2016-12-09

৯ ডিসেম্বর ’১৬ রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেনের ১৩৭ তম জন্মবার্ষিকী ও ৮৫ তম প্রয়াণদিবস। রোকেয়া জন্মমৃত্যু দিবস ভারতে, বাংলাদেশে, ইংলন্ডে ও অন্যত্র ‘রোকেয়াদিবস’হিসেবে পালিত হচ্ছে। যাঁরা অশিক্ষা, অজ্ঞানতা, কুসংস্কার, ধর্মবিদ্বেষ, কূপমন্ডুকতার অন্ধকার দূর করে, জ্ঞানের আলোকে ...

স্টাফ রাইটার,2016-10-29

আজ কালী পুজো। কার্ত্তিক মাসের অমাবস্যায় এই পুজো। কালী অর্থাৎ যিনি কালকে হরণ করতে পারেন। কালী শক্তির প্রতীক। সমস্ত অশুভকে ধ্বংস করেন যিনি তিনি কালী। তাঁকে আশ্রয় করে কত ভুলেভরা মানুষ পূণ্যের আস্বাদন পায়। মানব দেহ ধারণ কারে রামকৃষ্ণ, বামাক্ষেপা এই কালীর সাধনা করেই....

স্টাফ রাইটার,2016-09-30

অবশেষে পুলিশের জালে পার্কস্ট্রিট কান্ডের মূল অভিযু্ক্ত কাদের খান। উত্তর প্রদেশের নয়ডা থেকে তাকে পুলিশ গ্রেফতার করে। ঘটনা ঘটে যাওয়ার সাড়ে চারবছর পরে আত্মগোপনকারী কাদের ও অপর অভিযুক্ত আলিকে কলকাতা পুলিশের বিশেষ দল গ্রেফতার করে। আজই তাদের আনা হবে কলকাতায়।

স্টাফ রাইটার,2016-08-08

রুমা, রাকেশদের বাড়িতে এখন চালের অভাব নেই। ২টাকা কেজি চাল পাচ্ছে তাদের পরিবার। সরকারি সাহায্যার্থে মিলেছে স্কুল যাওয়ার জন্য সাইকেল। ড্রেস, বই-পত্র সবই মিলছে স্কুল থেকে। কিন্তু তবু!পড়াশোনা চালিয়ে যেতে কোথাও একটা খামতি আছে। কারণ, রুমারা সকলেই দুঃস্থ .....

স্টাফ রাইটার,2016-07-28

এসময়ের বর্ষীয়ান ও প্রখ্যাত সাহিত্যিক মহাশ্বেতা দেবী প্রয়াত। ৯০ বছরে তিনি চলে গেলেন। বেশকিছুদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে তিনি ভুগছিলেন। বেলভিউ হাসপাতালে বিকেল ৩-১৬মিনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। বহু সাহিত্য তিনি রেখে গেছেন। তাঁর বিখ্যাত দুটি বই ‘হাজার চুরাশির মা’ ও ....

স্টাফ রাইটার,2016-07-15

দার্জিলিং: দার্জিলিং থেকে বাগডোগরায় যাওয়ার পথে সোনাদার কাছে রাষ্ট্রপতির কনভয়ের একটি গাড়ি খাদে পড়ে যায়। গাছে গাড়িটি আটকে যায় তাতে ৬জন যাত্রী ছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধার কাজ তদারকি করেন। প্রত্যেককে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। আহতদের কাশিয়াং হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ....